ব্রা‌জিল হে‌সে খে‌লে হারা‌লো কো‌রিয়া‌কে – দৈনিক মুক্ত বাংলা
ঢাকামঙ্গলবার , ৬ ডিসেম্বর ২০২২
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি-ব্যবসা
  3. আইন ও আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরও
  6. ইসলাম ও ধর্ম
  7. কোভিট-১৯
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলা
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. বিনোদন
  13. মি‌ডিয়া
  14. মু‌ক্তিযুদ্ধ
  15. যোগা‌যোগ

ব্রা‌জিল হে‌সে খে‌লে হারা‌লো কো‌রিয়া‌কে

সম্পাদক
ডিসেম্বর ৬, ২০২২ ৯:১৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

নি‌শির শাহ ::

প্রথমার্ধে সেই ‘ফুল’ ফুটল ৪ বার। ফুলের ব্যাখ্যায় যাওয়ার আগে একটা তথ্য জানিয়ে রাখা উচিত। গ্রুপ পর্বে মাত্র ৩ গোল করেছিল ব্রাজিল, যা ১৯৭৮ বিশ্বকাপের পর গ্রুপ পর্বে ব্রাজিলের সবচেয়ে কম গোলের রেকর্ড। তার ওপর গ্রুপের শেষ ম্যাচে ক্যামেরুনের কাছে হার এবং গোল করতে না পারা—সব মিলিয়ে নেইমারদের মধ্যে একটি বিস্ফোরণ দেখার অপেক্ষা ছিল। সেটাই আজ দেখা গেল ভয়াল সুন্দর পারফরম্যান্সে।

৩৬ মিনিটের মধ্যে ৪ গোল! প্রতিটি গোলই যেন এক–একটি ‘গুলাবি খুশবু’, জোগো বনিতোর গন্ধে ম–ম করে। ২৯ মিনিটে রিচার্লিসনের হঠাৎ রোনালদো হয়ে গোল করা দেখে ধারাভাষ্যকার তো বলেই দিলেন, ‘দিস ইজ ব্রাজিল! দিস ইজ বিউটিফুল গেম!’

নেইমাররা সেই ‘বিউটিফুল গেম’ ফিরিয়ে আনাতেই ম্যাচটা আসলে প্রথমার্ধেই শেষ হয়ে গেছে। শেষ পর্যন্ত এসেছে ৪–১ গোলের মোহনীয় এক জয়।

৪–২–৩–১ ছকে রিচার্লিসনকে সামনে রেখে আক্রমণ সাজিয়েছিলেন ব্রাজিল কোচ তিতে। নেইমার ও দুই উইংয়ে ভিনিসিয়ুস এবং রাফিনিয়া দৌড়ানোর জায়গা পেয়েছেন শুরু থেকেই। পাথুরে নদীতে শত বাধার মধ্যেও জলের স্রোতোধারা যেভাবে সবকিছু ডিঙিয়ে আপন গতিতে এগিয়ে চলে, নেইমার ও তাঁর সতীর্থরা ঠিক এমন ফুটবলই খেলেছেন। তাতে ৭ মিনিটেই এসেছে প্রথম গোল।

ডান প্রান্ত দিয়ে রাফিনিয়া কোরিয়ান বক্সে ঢুকে ক্রস করেন। নেইমার বলে পা ছোঁয়ানোর চেষ্টা করেও পারেননি। পেছনেই একটু দূরে দাঁড়িয়ে ছিলেন ভিনিসিয়ুস। বলটা পেয়েই ভিনি যেন একটু বুঝে নিলেন, ঠিক কোন দিক দিয়ে মারলে কোনো বাধা ছাড়াই জালে যাবে।

তারপর সেদিক দিয়েই গোল!

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।