৫৫ বিলিয়ন ডলার ব্যয়ের ১০৫ কক্ষের হোটেল ৩৬ বছ‌রেও নির্মাণ শেষ হয়‌নি! – দৈনিক মুক্ত বাংলা
ঢাকারবিবার , ২৯ জানুয়ারি ২০২৩
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি-ব্যবসা
  3. আইন ও আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরও
  6. ইসলাম ও ধর্ম
  7. কোভিট-১৯
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলা
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. বিনোদন
  13. মি‌ডিয়া
  14. মু‌ক্তিযুদ্ধ
  15. যোগা‌যোগ
 
আজকের সর্বশেষ সবখবর

৫৫ বিলিয়ন ডলার ব্যয়ের ১০৫ কক্ষের হোটেল ৩৬ বছ‌রেও নির্মাণ শেষ হয়‌নি!

সম্পাদক
জানুয়ারি ২৯, ২০২৩ ৯:৫১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

আ‌রিফ হো‌সেন নি‌শির ::

বিশ্বের এটি সর্বোচ্চ হোটেল (Hotel)। এতে ১০৫ টি বিলাসবহুল কক্ষ রয়েছে। খবর অনুযায়ী, এটি নির্মাণে ৫৫ বিলিয়ন টাকা ব্যয় করা হয়েছে, কিন্তু এটি নির্মাণের ৩৬ বছর পেরিয়ে গেলেও আজ পর্যন্ত কেউ এটিতে অবস্থান করেনি। সর্বোপরি, সেই হোটেলে কী এমন বিশেষত্ব যে আজ পর্যন্ত কোনও যাত্রী সেখানে থাকতে আসেননি। এই হোটেল একপ্রকার নির্জন এবং ভূতুড়ে থেকে গেছে। আজ আমরা এই অনন্য রহস্য থেকে পর্দা সরাতে চলেছি।

পিরামিড আকৃতির এই হোটেলটি উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ে অবস্থিত। প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৯৮৭ সালে এই হোটেলের নির্মাণকাজ শুরু হয়েছিল। সরকারি কর্মকর্তারা আশা করেছিলেন দুই বছরের মধ্যে এর নির্মাণকাজ শেষ হবে, কিন্তু তা সম্ভব হয়নি। পশ্চিমা দেশগুলির নিষেধাজ্ঞার কারণে, দেশটির অর্থনৈতিক অবস্থা খারাপ ছিল, যার কারণে এটি তহবিল সংগ্রহে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হয়েছিল। এই কারণে হোটেল নির্মাণের উপকরণ সময়মতো পাওয়া যায়নি।

অবশেষে, বিরক্ত হয়ে, উত্তর কোরিয়া সরকার ১৯৯২ সালে এর নির্মাণ বন্ধ করে দেয়। ১৬ বছর পর অর্থাৎ ২০০৮ সালে আবারও এর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। ২০১২ সালের মধ্যে এই হোটেলটি প্রস্তুত হওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল, কিন্তু সেই সময়সীমা আবার অসম্পূর্ণ থেকে যায়। এখন ৩৬ বছর পরও ১০৫টি কক্ষ বিশিষ্ট এই হোটেলটি অর্ধেক অসম্পূর্ণ। অথচ এর নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৫৫ হাজার কোটি টাকা। এটি উত্তর কোরিয়ার মোট জিডিপির ২ শতাংশ।

এই হোটেলের অফিসিয়াল নাম Ryugyong। যদিও উত্তর কোরিয়ায় এটি ইউ-কিউং নামেই বেশি পরিচিত। এই হোটেলের উচ্চতা ৩৩০ মিটার এবং এতে ১০৫টি বিশাল কক্ষ তৈরি করা হয়েছে। গত ৩৬ বছর ধরে নির্মাণকাজ চললেও কাজ শেষ না হওয়ায় আজও চালু করা যায়নি হোটেলটি। যার কারণে মানুষ এখন একে ভুতুড়ে হোটেল বা অভিশপ্ত হোটেল বলতে শুরু করেছে। অনেকে একে ‘১০৫ বিল্ডিং’ নামেও চেনেন। আজ পর্যন্ত কোনো রহস্যময় ঘটনা সামনে না আসলেও হোটেলটির পরিণতি দেখে আজ পর্যন্ত কেউ সেখানে থাকার সাহস জোগায়নি।

img 20230128 114940

 

উত্তর কোরিয়ার সরকারের উদ্দেশ্য ছিল এই হোটেলটিকে বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু হোটেল হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া, যা তাদের দেশকে পর্যটন কেন্দ্রে পরিণত করবে। তবে তিনি এটি নয়, অন্য একটি পরিচয় পেয়েছেন। বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু নির্জন ভবন হিসেবে গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে এই হোটেলের নাম নথিভুক্ত করা হয়েছে। যার পেছনে অনেক টাকা খরচ হয়েছে। কথিত আছে, এই হোটেলটি যদি সময়মতো শেষ হয়ে শুরু হতো, তাহলে এটি বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু ভবন হিসেবে আখ্যায়িত হতো।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।