মাইক্রোসফটকে টপকে বিশ্বের সবচেয়ে দামি কোম্পানি এনভিডিয়া – দৈনিক মুক্ত বাংলা
ঢাকাবুধবার , ১৯ জুন ২০২৪
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি-ব্যবসা
  3. আইন ও আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরও
  6. ইসলাম ও ধর্ম
  7. কোভিট-১৯
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলা
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. বিনোদন
  13. মি‌ডিয়া
  14. মু‌ক্তিযুদ্ধ
  15. যোগা‌যোগ

মাইক্রোসফটকে টপকে বিশ্বের সবচেয়ে দামি কোম্পানি এনভিডিয়া

বার্তা কক্ষ
জুন ১৯, ২০২৪ ৩:২২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতি‌বেদক ::

মাইক্রোসফটকে টপকে বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে দামি কোম্পানি এআই চিপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এনভিডিয়া। এখন কোম্পানিটির বাজারমূল্য প্রায় ৩.৩৩৫ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার।

গতকাল (মঙ্গলবার) চিপমেকার প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার ৩.৫ শতাংশ বেড়ে ১৩৫.৫৮ ডলারে পৌঁছায়। কিছুদিন আগে এনভিডিয়া অ্যাপলকে টপকে বিশ্বের দ্বিতীয় দামি কোম্পানি হয়েছিল।

চলতি বছরেই এনভিডিয়ার শেয়ারের মূল্য বেড়েছে ১৮২ ভাগ। আর গত বছর কোম্পানিটির শেয়ারের মূল্য বেড়েছিল তিনগুণ।

এদিকে মাইক্রোসফট ও অ্যাপলের শেয়ারের দামে নিম্নমুখী প্রবণতা দেখা গেছে। এদের শেয়ারের মূল্য যথাক্রমে ০.৪৫ শতাংশ এবং ১.১ শতাংশ কমেছে।

এনভিডিয়া ওপেনএআই-এর চ্যাটজিপিটির মতো এআই মডেলগুলি চালানোর জন্য প্রয়োজনীয় ডেটা সেন্টারে ব্যবহৃত এআই চিপের প্রায় ৮০ শতাংশ সরবরাহ করে। ১৯৯৯ সালে স্টক মার্কেটে আত্মপ্রকাশের পর থেকে কোম্পানিটির শেয়ার ৫৯১,০৭৮ শতাংশ বেড়েছে।

অর্থাৎ একজন বিনিয়োগকারী যিনি ১৯৯৯ সালে কোম্পানিটিতে ১০ হাজার ডলার বিনিয়োগ করেছেন আজ তার মূল্য হবে ৫৯,১০৭,৮০০ ডলার।

এনভিডিয়া প্রথম কয়েক দশক কাটিয়েছে মূলত কম্পিউটার গেমের জন্য চিপ তৈরিতে ফোকাস করে। কিন্তু ২০০০-এর দশকে প্রধান নির্বাহী জেনসেন হুয়াং কোম্পানির গেমিং ছাড়াও অ্যাপ্লিকেশনগুলিতে ব্যবহারের জন্য জিপিইউ’র বিকাশে ব্যাপকভাবে বিনিয়োগ করার নির্দেশ দেন। এটি এআইয়ের উত্থানে বেশ কার্যকরী হিসেবে কাজ করে।

কোম্পানিটির উত্থানে বিশ্বের অন্যতম ধনী ব্যক্তিতে পরিণত হয়েছে হুয়াং। ফোর্বসের মতে, তার মোট সম্পদের পরিমাণ প্রায় ১১৭ বিলিয়নেরও বেশি।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।