রাষ্ট্রপতি পদ লাভজনক নয়: ইসি – দৈনিক মুক্ত বাংলা
ঢাকামঙ্গলবার , ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি-ব্যবসা
  3. আইন ও আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরও
  6. ইসলাম ও ধর্ম
  7. কোভিট-১৯
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলা
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. বিনোদন
  13. মি‌ডিয়া
  14. মু‌ক্তিযুদ্ধ
  15. যোগা‌যোগ

রাষ্ট্রপতি পদ লাভজনক নয়: ইসি

সম্পাদক
ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২৩ ১০:০৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদক ::

নিয়ম অনুযায়ী দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়িত্ব পালনকারী কমিশনাররা পরবর্তীতে কোনো লাভজনক পদে কাজ করতে পারেন না। দেশের নতুন রাষ্ট্রপতি হিসেবে সাবেক দুদক কমিশনার  মো. সাহাবুদ্দিন নির্বাচিত হওয়ায়, রাষ্ট্রপতি পদটি লাভজনক কিনা; তা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। এ আলোচনার জবাব দিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার (ইসি) মো. আলমগীর। আজ মঙ্গলবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, রাষ্ট্রপতি পদটি লাভজনক নয়।

ইসির এ কমিশনার বলেন, ‘একটা ব্যাপার বুঝতে হবে, লাভজনক পদের বিষয়ে একেবারে স্পষ্টভাবে বলা আছে, লাভজনক পদ বলতে কী বোঝায়, যদিও তালিকা দেয়া নেই। তবে লাভজনক পদের ক্ষেত্রে বলা আছে, প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োজিত এবং কোনো প্রতিষ্ঠানে যদি সরকারের ৫০ ভাগের অধিক অর্থ থাকে, তাহলে সেই পদে নিয়োগকে বলা হবে লাভজনক পদ। তো এখানে রাষ্ট্রপতি বা প্রধানমন্ত্রী বা মন্ত্রী উনারা কিন্তু প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োজিত কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারী না। এগুলো হলো সাংবিধানিক পদ। যেহেতু সাংবিধানিক পদ, অতএব লাভজনক পদের ডেফিনিশনে এরা পড়েন না।’

তিনি বলেন, ‘বিচারপতি সাহাবুদ্দীন যখন রাষ্ট্রপতি পদে অধিষ্ঠিত হয়েছিলেন, তখন এ নিয়ে কোর্টে একটি মামলা হয়েছিল। কারণ বিচারপতির ক্ষেত্রেও একই আইন যে, তারা লাভজনক পদে যেতে পারবেন না। ওই মামলায় হাইকোর্ট একটি রায় দিয়েছিলেন। সেখানে হাইকোর্ট বলে দিয়েছেন যে, এতে কোনো বাধা নেই এবং সেই আদেশের বিরুদ্ধে কোনো আপিলও হয়নি। যেহেতু আমাদের সামনে উচ্চ আদালতের একটি সুনির্দিষ্ট উদাহরণ রয়েছে যে, রাষ্ট্রপতির পদকে লাভজনক পদ বলা যাবে না এবং ওই রায়ে বলা আছে, লাভজনক পদ বলতে বোঝাবে প্রজাতন্ত্রের যারা কর্মকর্তা-কর্মচারী তাদের, অতএব এটি তার (মো. সাহাবুদ্দিন) জন্য প্রযোজ্য নয়। তার রাষ্ট্রপতি পদে আসীন হতে আইনগত কোনো বাধা নেই।’

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বিষয়ে মো. আলমগীর বলেন, ‘‌আমরা কখনো বলিনি ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে নির্বাচন হবে অথবা জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে নির্বাচন হবে। আমরা বলেছি ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহ থেকে জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহের মধ্যে নির্বাচন হবে। কর্মপরিকল্পনা অনুযায়ী ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহ থেকে জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহের মধ্যে নির্বাচনের জন্য এগিয়ে যাচ্ছি আমরা। কখন ভোট হবে, কমিশন সভায় সিদ্ধান্ত নিয়ে তা চূড়ান্ত করা হবে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।