বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী – দৈনিক মুক্ত বাংলা
ঢাকাশনিবার , ১১ মার্চ ২০২৩
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি-ব্যবসা
  3. আইন ও আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরও
  6. ইসলাম ও ধর্ম
  7. কোভিট-১৯
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলা
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. বিনোদন
  13. মি‌ডিয়া
  14. মু‌ক্তিযুদ্ধ
  15. যোগা‌যোগ

বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী

সম্পাদক
মার্চ ১১, ২০২৩ ১:৪২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

আ‌রিফ নি‌শির :

দেশের ব্যবসা ও বিনিয়োগ সম্প্রসারনের লক্ষ্যে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশন (এফবিসিসিআই) ‘বাংলাদেশ বিজনেস সামিট’ এর আয়োজন করেছে। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে তিনদিনব্যাপী এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

শনিবার সকালে সম্মেলনের উদ্বোধনী ভাষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ২০০৯ সালে আমরা সরকার গঠনের পর দেশের ব্যাপক অর্থনৈতিক অগ্রগতি হয়েছে। দেশকে আমরা দ্রুততম বর্ধনশীল অর্থনীতির দেশে পরিণত করতে পেরেছি। বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল।

তিনি বলেন, আমরা রূপকল্প-২০৪১ বাস্তবায়নে কাজ শুরু করেছি। ২০২৬ সালে বাংলাদেশ হবে বিশ্বের ২০তম বৃহৎ অর্থনীতির দেশ।

তিনি বলেন, বিদেশি বিনিয়োগকারিদের জন্য সব সুবিধা নিয়ে প্রস্তুত বাংলাদেশ। লাল ফিতার দৌরাত্ম কমানোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, করোনা ও ইউক্রেন যুদ্ধের অভিঘাত আমাদের দেশেও প্রভাব ফেলেছে। কিন্তু বিশ^ অর্থনীতির মন্দা পরিস্থিতিতেও আমরা উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে পেরেছি। এই অভিঘাত না এলে দারিদ্র বিমোচনের হার আরেকটু বাড়তো।

এই আন্তর্জাতিক বাণিজ্য সম্মেলনে যুক্তরাজ্য, সৌদি আরব, চীন, ভূটান, সংযুক্ত আরব আমীরাতসহ ১২টি আন্তর্জাতিক সংস্থার সিইও এবং ২শ’র বেশি বিদেশী বিনিয়োগকারী, বিশ্বের ১৭টি দেশের ব্যবসায়ী নেতারা সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন। তিন দিনের সামিটে বাংলাদেশের বিভিন্ন খাত নিয়ে ১৭টি সেমিনার ও তিনটি প্ল্যানারি সেশন অনুষ্ঠিত হবে।

এফবিসিসিআই সভাপতি জসিম উদ্দিন বলেন, দেশে এক সময় বিনিয়োগ আনার সক্ষমতা ছিল না। এখন সেই সক্ষমতা তৈরি হয়েছে। ওয়ালমার্ট, জারা’র মত কোম্পানি কলকাতায় চলে এসেছে। এখন তাদের বাংলাদেশে আসার সময় হয়েছে। বাংলাদেশের রপ্তানির সম্ভাবনার পাশাপাশি লোকাল কনজ্যুমার মার্কেটও বড় হচ্ছে। দেশে এখন ১০০টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল দৃশ্যমান। আমাদের এসব সক্ষমতা তুলে ধরা দরকার

দেশের সবচেয়ে বড় ব্যবসায়িক সম্মেলন বাংলাদেশ বিজনেস সামিট উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ শনিবার (১১ মার্চ) সকাল ১১টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) এই আয়োজনের শুভ সূচনা ঘোষিত হয়।

বিশ্বের সামনে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সম্ভাবনা তুলে ধরার লক্ষ্যে তিনদিনের এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এতে অংশ নিচ্ছে যুক্তরাজ্য, সৌদি আরব, চীন, ভুটান, সংযুক্ত আরব আমিরাতসহ সাতটি দেশের মন্ত্রী, ১২টি বহুজাতিক কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং ১৭টি দেশের ২০০টিরও বেশি বিদেশী বিনিয়োগকারী প্রতিনিধি ও ব্যবসায়ী নেতারা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো ছিলেন বাংলাদেশের বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমানসহ সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও ব্যবসায়ী নেতারা।

বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সক্ষমতা বাড়ানো, নতুন বিনিয়োগের সুযোগ তৈরি করা এবং দেশে ব্যবসা সম্প্রসারণে সহায়তা করবে এ সামিট। মেগা এ সম্মেলন সফল ও অর্থবহ করতে সবার সহযোগিতা কামনা করেন এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন।

বাংলাদেশ বিজনেস সামিটে এফবিসিসিআইয়ের অংশীদার হিসেবে কাজ করছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা)।

বিভিন্ন কৌশলগত বিষয়ে ৩টি প্লেনারি সেশন, ১৪টি প্যারালাল সেশন, বিজনেস টু বিজনেস মিট, নেটওয়ার্কিং সেশন, একটি ওপেন হাউজ রিসেপশন এবং আন্তর্জাতিক প্রতিনিধিদের জন্য গাইডেড ট্যুর থাকবে এ সামিটে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।