৫ ছক্কা-৫১৭ রান, টি-টোয়েন্টিতে রেকর্ড গড়া জয় দক্ষিণ আফ্রিকার – দৈনিক মুক্ত বাংলা
ঢাকারবিবার , ২৬ মার্চ ২০২৩
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি-ব্যবসা
  3. আইন ও আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরও
  6. ইসলাম ও ধর্ম
  7. কোভিট-১৯
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলা
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. বিনোদন
  13. মি‌ডিয়া
  14. মু‌ক্তিযুদ্ধ
  15. যোগা‌যোগ

৫ ছক্কা-৫১৭ রান, টি-টোয়েন্টিতে রেকর্ড গড়া জয় দক্ষিণ আফ্রিকার

সম্পাদক
মার্চ ২৬, ২০২৩ ১০:৪৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতি‌বেদক ::

মাঠে খেলা দেখতে গেলেও সেঞ্চুরিয়নের দর্শকরা যেন পালন করলেন ফিল্ডারের ভূমিকা। একের পর এক ছক্কা গ্যালারিতে থাকাদের খেলিয়েই ছাড়লো। তারা সাক্ষী হলেন রেকর্ডের।

ছক্কাবৃষ্টিতে দর্শকরা দেখলেন রানের বন্যা। দুই দল মিলিয়ে ম্যাচে ৫১৭ রান আর ৩৫ ছক্কা মেরেছেন ক্রিকেটাররা। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে নতুন বিশ্ব রেকর্ড এটি।

শেষমেষ ৭ বল বাকি থাকতেই ৪ উইকেট হারিয়ে ক্যারিবীয়দের পরাজয়ের স্বাদ দেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। আন্তর্জাতিক টি–টোয়েন্টিতে এটি রান তাড়ায় বিশ্ব রেকর্ড।

টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ ২৪৬ রান তাড়া করে জেতার রেকর্ড ছিল বুলগেরিয়ার, গত বছর সার্বিয়ার বিপক্ষে। তবে পূর্ণ সদস্য দেশ হিসেবে এই রেকর্ডের মালিক ছিল অস্ট্রেলিয়া। ২০১৮ সালে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে ২৪৫ রান করে জিতেছিল অজিরা। সেঞ্চুরিয়নে তা ছাপিয়ে গেলো দক্ষিণ আফ্রিকা।

বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই ঝড় তুলতে থাকেন দুই প্রোটিয়া ওপেনার কুইন্টন ডি কক ও রেজা হেন্ড্রিকস। দুজনের ব্যাটে মাত্র ৫.৩ ওভারে দ্রুততম দলীয় শতকের রেকর্ড গড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। এর আগে ২০২১ সালে ৬.১ ওভারে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এ রেকর্ড গড়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ডি কক ১৫ বলে ফিফটি করার পর ৪৩ বলে তুলে নেন আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে নিজের প্রথম সেঞ্চুরি।

রেইমন রাইফার যতক্ষণে ডি কককে সাজঘরের পথ ধরান ততক্ষণে জয়ের ভিত শক্ত হয়ে যায় প্রোটিয়াদের। দলীয় ১৫২ রানে আউট হন ডি কক। ৪৪ বলে ৯ চার ও ৮ ছক্কায় থামে তার ইনিংস। রেজা থামেন ২৮ বলে ১১ চার ও ২ ছক্কার মারে ৬৮ রান করে। শেষদিকে ৪ চার ও এক ছক্কায় ২১ বলে ৩৮ রানে অপরাজিত থেকে দলের জয় নিশ্চিত করেন অধিনায়ক এইডেন মারক্রাম।

ক্যারিবীয়দের পক্ষে একটি করে উইকেট তুলে নেন জেসন হোল্ডার, ওডিন স্মিথ, রেইমন রাইফার ও রভম্যান পাওয়েল। এর আগে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে চার্লসের প্রথম সেঞ্চুরিতে নির্ধারিত ওভার শেষে ৫ উইকেট হারিয়ে ২৫৮ রান সংগ্রহ করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৩৯ বলে মাইলফলকে পা রেখে ক্যারিবীয়দের হয়ে টি-টোয়েন্টি ইতিহাসে দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ড করেন চার্লস।

আগের রেকর্ড ছিল ক্রিস গেইলের। ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে গেইল ৪৭ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন। দ্রুততম সেঞ্চুরির বিশ্বরেকর্ডের তালিকায় চার্লস দুই নম্বরে জায়গা করে নিয়েছেন। এ তালিকায় ৩৫ বলে সেঞ্চুরি আছে ডেভিড মিলার, রোহিত শর্মা ও চেক রিপাবলিকের সুদেশ বিক্রমাসেকারার। সাজঘরে ফেরার আগে চার্লস ৪৬ বলে ১০ চার ও ১১ ছক্কায় করেন ১১৮ রান।

এছাড়া ২৭ বলে ৫ চার ও ৪ ছক্কায় ৫১ রান করে ক্যারিবীয়দের ইনিংস বড় করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন কাইল মেয়ার্স। প্রোটিয়াদের হয়ে ৫২ রান খরচায় সর্বোচ্চ ৩ উইকেট তুলে নেন মার্কো ইয়ানসেন। ৪৩ রান খরচায় বাকি ২ উইকেট নিজের পকেটে পুরেন ওয়েন পার্নেল। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ৩ উইকেটের জয় পেয়েছিল ক্যারিবীয়রা। দ্বিতীয় ম্যাচ জিতে সিরিজে সমতায় ফিরল প্রোটিয়ারা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ২০ ওভারে ২৫৮/৫ (কিং ১, মেয়ার্স ৫১, চার্লস ১১৮, পুরান ২, পাওয়েল ২৮, শেফার্ড ৪১*, স্মিথ ১১*; পার্নেল ৪-০-৪৩-২, মারক্রাম ২-০-২২-০, রাবাদা ৪-০-৩৯-০, ইয়ানসেন ৪-০-৫২-৩, মাগালা ৪-০-৬৭-০, শামসি ২-০-৩৩-০)

দক্ষিণ আফ্রিকা: ১৮.৫ ওভারে ২৫৯/৪ (ডি কক ১০০, হেনড্রিকস ৬৮, রুশো ১৬, মিলার ১০, মারক্রাম ৩৮*, ক্লসেন ১৬*; আকিল ২-০-৩৩-০, কটরেল ১-০-২৯-০, হোল্ডার ৪-০-৪৮-১, শেফার্ড ৩.৫-০-৪৪-০, স্মিথ ২-০-৩৬-১, রিফার ৪-০-৪২-১, পাওয়েল ২-০-২৭-১)

ফল: দক্ষিণ আফ্রিকা ৬ উইকেটে জয়ী

সিরিজ: তিন ম্যাচ সিরিজে ১-১ সমতা

ম্যান অব দা ম্যাচ: কুইন্টন ডি কক

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।