সুপ্রিমকোর্ট বারের নতুন নির্বাচন : আ.লীগপন্থিদের প্রত্যাখ্যান – দৈনিক মুক্ত বাংলা
ঢাকাবৃহস্পতিবার , ৩০ মার্চ ২০২৩
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি-ব্যবসা
  3. আইন ও আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরও
  6. ইসলাম ও ধর্ম
  7. কোভিট-১৯
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলা
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. বিনোদন
  13. মি‌ডিয়া
  14. মু‌ক্তিযুদ্ধ
  15. যোগা‌যোগ
 
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সুপ্রিমকোর্ট বারের নতুন নির্বাচন : আ.লীগপন্থিদের প্রত্যাখ্যান

সম্পাদক
মার্চ ৩০, ২০২৩ ১০:২৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতি‌বেদক :

সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির নতুন নির্বাচন নিয়ে তলবি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওই সভায় ১৫ ও ১৬ মার্চ সুপ্রিমকোর্ট বারে কোনো নির্বাচন হয়নি উল্লেখ করে ১৪ ও ১৫ জুন নতুন নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির ১নং হল রুমে অনুষ্ঠিত এ সভায় সভাপত্বি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ও সংবিধান প্রণয়ন কমিটির অন্যতম সদস্য ব্যারিস্টার এম আমীর-উল ইসলাম।

এদিকে এই তলবি সভাকে হাস্যকর ও তামাশা বলে উল্লেখ করেছেন সুপ্রিমকোর্ট বারের সম্পাদক আবদুর নূর দুলাল। তিনি এ‌বি‌সি টি‌ভি ও দৈ‌নিক মুক্ত বাংলা এবং সাপ্তা‌হিক চলমান দেশ‌কে জানান, এরকম সভা তারা আগেও করেছেন। এর কোনো আইনগত বৈধতা নেই।

তিনি বলেন, গঠণতন্ত্রে আছে, যদি কোনো সদস্য তলবি সভা ডাকতে চান, তাহলে সভার প্রথম নোটিশ বর্তমান সম্পাদককে দিতে হবে। সম্পাদক যদি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে তলবি সভা না ডাকেন, তাহলে যারা তলবি সভা ডেকেছেন তারা একত্রে বসে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন। আমাকে কিংবা আমার অফিসকে তারা এরকম কোনো নোটিশ দেয়নি। তিনি আরও বলেন, আজকের সভা শুধু বেআইনি নয়, এটা একটা হাস্যকর বিষয়। এটাকে আমরা আমলে নিচ্ছি না। দেশের সর্বোচ্চ আদালতের সর্বোচ্চ সমিতিকে নিয়ে এটা একটা তামাশা ছাড়া আর কিছু নয়।

সুপ্রিমকোর্ট বার সমিতির গঠনতন্ত্র অনুযায়ী বৃহস্পতিবার দুপুরে সদস্যদের তলবি সাধারণ সভা ডাকা হয়। এতে সমিতির সাবেক সভাপতি, সম্পাদক, সিনিয়রসহ কয়েকশ আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন। সভায় বক্তব্য দেন তলবি সভা আহ্বানকারী জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মোহাম্মদ মহসিন রশিদ। উপস্থিত ছিলেন সাবেক সভাপতি জয়নুল আবেদীন, সাবেক সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

তলবি সভায় আইনজীবী মহসিন রশিদকে আহ্বায়ক ও আইনজীবী শাহ্ আহমেদ বাদলকে সদস্য সচিব করে ১৪ সদস্যের অন্তর্বর্তীকালীন কমিটি গঠন করা হয়। এ কমিটি সমিতির সংবিধান অনুযায়ী ফর্ম বিতরণ করে ১৫ মের মধ্যে নতুন ভোটার তালিকা প্রণয়ন করবে এবং ১৪ ও ১৫ জুন সুপ্রিমকোর্ট বারের নির্বাচন অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে।

সভায় ব্যারিস্টার এম আমীর-উল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশের প্রতিটা বারের সদস্যরা প্রশ্ন তুলছেন, সুপ্রিমকোর্ট বারে এমন অবস্থা কেন? বারের দীর্ঘদিনের যে ঐতিহ্য ছিল, সেই ঐতিহ্যে কলঙ্কলেপন করা হয়েছে। আমরা যারা আছি, সবাইকে বারের সম্মান রক্ষা করতে হবে। আগামী নির্বাচনে আমি আশা করি সংকট অতিক্রম করে একটি স্বাধীন বার অ্যাসোসিয়েশন করতে পারব।

বৃহস্পতিবার দুপুরে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা পালটাপালটি বিক্ষোভ মিছিল করেছেন। একপর্যায়ে বার ভবনের সামনে দুই দলের মধ্যে ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।