আয়ারল্যান্ডকে সাত উইকেটে হারাল বাংলাদেশ – দৈনিক মুক্ত বাংলা
ঢাকাবৃহস্পতিবার , ৬ এপ্রিল ২০২৩
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি-ব্যবসা
  3. আইন ও আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরও
  6. ইসলাম ও ধর্ম
  7. কোভিট-১৯
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলা
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. বিনোদন
  13. মি‌ডিয়া
  14. মু‌ক্তিযুদ্ধ
  15. যোগা‌যোগ

আয়ারল্যান্ডকে সাত উইকেটে হারাল বাংলাদেশ

সম্পাদক
এপ্রিল ৬, ২০২৩ ৭:০৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ক্রীড়া প্রতিবেদক::

মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনভিজ্ঞ এক দল নিয়ে মাঠে নামে টেস্টের নবীনতম সদস্য আয়ারল্যান্ড। মাত্র চতুর্থবারের মতো টেস্ট খেলতে নামা আইরিশরা প্রথম দেখাতেই বাংলাদেশকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিচ্ছিল। যদিও শেষ পর্যন্ত দাপটের সঙ্গেই জয় তুলে নিয়েছে সাকিব আল হাসানের দল। শঙ্কা তাড়িয়ে গতকাল চতুর্থ দিন ১৩৮ রানের লক্ষ্যটা তিন উইকেট হারিয়ে ২৭.১ ওভারের মধ্যেই ছুঁয়ে ফেলে স্বাগতিকরা।

১৩৭ টেস্টে এটা বাংলাদেশের ১৭তম জয়। সর্বশেষ নয় টেস্টের মধ্যে আটটিতেই হেরে যাওয়া বাংলাদেশ অবশেষে জয়ের স্বাদ পেল। গত বছর জানুয়ারিতে মাউন্ট মঙ্গানুইতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয়ের পর এ প্রথম টেস্ট জিতল টাইগাররা।

৮ উইকেটে ২৮৬ রান নিয়ে গতকাল সকালে ব্যাটিংয়ে নামা আইরিশরা অলআউট হয়ে যায় ২৯২ রানে। এতে ১৩৮ রানের টার্গেটের সামনে পড়ে বাংলাদেশ। ছোট্ট টার্গেট তাড়া করতে নেমে ৩২ রানের মাথায় লিটন দাস (২৩) ও ৪৩ রানে নাজমুল হোসেন শান্তর (৪) উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। এরপর তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম দৃঢ়তা দেখিয়ে দলের সংগ্রহ একশ পার করান। তামিম ব্যক্তিগত ৩১ রান করে আউট হয়ে গেলেও মুমিনুলকে নিয়ে দাপটের সঙ্গে বাকি রানগুলো তুলে নেন প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি করা মুশফিক। ৪৮ বলে ৫১ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। মুমিনুল ২২ বলে ২০ রানের ঝলমলে ইনিংস খেলে দলের জয় ত্বরান্বিত করেন। টাইগাররা ওভারপ্রতি ৫ রান তুলেছে। মার্ক অ্যাডায়ার, অ্যান্ডি ম্যাকব্রাইন ও বেন হোয়াইট একটি করে উইকেট নেন।

তাইজুল ইসলামের ঘূর্ণির মুখে আইরিশরা প্রথম ইনিংসে ২১৪ রানে অলআউট হয়। সেই থেকে ম্যাচে কর্তৃত্ব করে এসেছে টাইগাররা। মুশফিকের সেঞ্চুরি, সাকিব ও মেহেদী হাসান মিরাজের মারমুখী হাফসেঞ্চুরি দলকে এনে দেয় ৩৬৯ রানের পুঁজি। ১৫৫ রানের লিড পাওয়া স্বাগতিকরা মাত্র ১৩ রানের মধ্যে আয়ারল্যান্ডের ৪টি উইকেট তুলে নেয়। অতিথিরা দ্বিতীয় দিন শেষ করে ২৭/৪ স্কোর নিয়ে।

আইরিশরা দ্বিতীয় ইনিংসে লড়াই করে ম্যাচে প্রাণ ফেরায়। লরকান টাকারের সেঞ্চুরি ও ম্যাকব্রাইনের ৭২ রানে ভর করে বিপর্যয় কাটিয়ে শেষ পর্যন্ত দলটি ২৯২ রান তুলতে সমর্থ হয়। তাদের লক্ষ্য ছিল বাংলাদেশকে ১৮০-১৯০ রানের টার্গেট দেয়া। যদিও গতকাল সকালে নতুন বলে এবাদত হোসেনের গতিতে দ্রুতই বাকি দুই উইকেট হারায় অতিথিরা। হুমকি হয়ে ওঠা ম্যাকব্রাইনকে বোল্ড করেন এবাদত। আর গ্রাহাম হিউমকে উইকেটকিপার লিটন দাসের ক্যাচ বানিয়ে সাজঘরে ফেরান এ পেসার। তাইজুল ৯০ রানে চারটি ও এবাদত ২৭ রানে তিনটি উইকেট নেন।

প্রথম ইনিংসে ১২৬ ও দ্বিতীয় ইনিংসে হার না মানা হাফসেঞ্চুরি মুশফিককে এনে দেয় ম্যাচসেরার পুরস্কার। ম্যাচসেরার দাবিদার ছিলেন আরো কয়েকজন। তাইজুল দুই ইনিংসে নিয়েছেন ৯ উইকেট। লরকান টাকার প্রথম ইনিংসে ৩৭ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ১০৮ রান করেন। ম্যাকব্রাইন ব্যাট হাতে যথাক্রমে ১৯ ও ৭২ রানের ইনিংস খেলেন, বল হাতে প্রথম ইনিংসে ১১৮ রানে ৬টি ও দ্বিতীয় ইনিংসে ৫২ রানে ১টি উইকেট নেন।

ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান বলেছেন, হার নিয়ে দলের মধ্যে কোনো দুর্ভাবনাই ছিল না। তার কথায়, ‘না! হারের শঙ্কাটা ছিল না। টেস্ট ক্রিকেটে যেটা হয়, অনেক সময় থাকে ঘুরে দাঁড়ানোর। ওয়ানডেতে একটু কম, টি২০-তে খুবই কম। সেদিক থেকে কখনই কারো মাথায় ওই চিন্তা আসেনি। গতকাল (বৃহস্পতিবার) আয়ারল্যান্ড ভালো খেলেছে। আমি বলব, এটা তাদের জন্য ভালো দিক। ওরা অনেক লড়াই করেছে, যেটা শুরুর দিকে আমরা হয়তো প্রত্যাশা করিনি। কিন্তু ওরা সংস্কৃতিগত দিক থেকেই অনেক লড়াকু মনোভাবের। সেটাই ওরা দেখিয়েছে।’

সাকিব জানান, জয়ের স্বপ্ন মনে নিয়েই গতকাল মাঠে এসেছিল আয়ারল্যান্ড। কাল সংবাদ সম্মেলনে আইরিশ দলনায়ক অ্যান্ড্রু বালবার্নিও বললেন, লিড আরেকটু বেশি হলে ম্যাচের চিত্রনাট্য হয়তো অন্য রকমও হতো। তার কথায়, ‘অবশ্যই (আমরা জয়ের সুযোগ দেখেছি)। উইকেট খুব ভালো ছিল। আমার মতে, আজকে (শুক্রবার) সকালে ইবাদত (হোসেন) খুব ভালো বোলিং করেছে। স্টাম্পে আক্রমণ করেছে। আমাদের ১৮০-১৯০ রানের লিড এনে দেয়ার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী ছিল অ্যান্ডি (ম্যাকব্রাইন)। এরপর কী হতে পারত, কেউ জানে না।’

সংক্ষিপ্ত স্কোর

আয়ারল্যান্ড: ২১৪ ও ২৯২ (টাকার ১০৮, ম্যাকব্রাইন ৭২, টেক্টর ৫৬; তাইজুল ৪/৯০, এবাদত ৩/৩৭, সাকিব ২/২৬)। বাংলাদেশ: ৩৬৯ ও ১৩৮/৩ (মুশফিক ৫১*, তামিম ৩১, লিটন ২৩, মুমিনুল ২০*; অ্যাডায়ার ১/৩০)। ফল: বাংলাদেশ ৭ উইকেটে জয়ী। ম্যান অব দ্য ম্যাচ: মুশফিকুর রহিম (বাংলাদেশ)

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।