ধানমন্ডিতে সড়ক বিভাজকে গাছকাটা বন্ধের দাবিতে মেয়রকে ৩৮ নাগরিকের চিঠি – দৈনিক মুক্ত বাংলা
ঢাকাসোমবার , ৮ মে ২০২৩
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি-ব্যবসা
  3. আইন ও আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরও
  6. ইসলাম ও ধর্ম
  7. কোভিট-১৯
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলা
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. বিনোদন
  13. মি‌ডিয়া
  14. মু‌ক্তিযুদ্ধ
  15. যোগা‌যোগ

ধানমন্ডিতে সড়ক বিভাজকে গাছকাটা বন্ধের দাবিতে মেয়রকে ৩৮ নাগরিকের চিঠি

সম্পাদক
মে ৮, ২০২৩ ৯:৩৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদক :: 

রাজধানীর ধানমন্ডিতে সাত মসজিদ সড়কের সড়ক বিভাজকে দাঁড়িয়ে থাকা বাকি গাছগুলো কাটা বন্ধ করতে এবং এরই মধ্যে যেসব গাছ কেটে ফেলা হয়েছে সে জায়গায় দেশীয় প্রজাতির গাছ রোপণ করার দাবি জানিয়ে ৩৮ নাগরিক ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়রকে চিঠি দিয়েছেন। একই সঙ্গে সাত মসজিদ সড়ক বিভাজক ছাড়াও অন্যত্র যেখানেই সড়ক বিভাজক সম্প্রসারণের নামে গাছ কাটা হচ্ছে তা অনতিবিলম্বে বন্ধের অনুরোধ জানান তারা।

চিঠিতে সই করা বিশিষ্ট নাগরিকদের মধ্যে রয়েছেন সুলতানা কামাল, খুশী কবির, রাশেদা কে. চৌধুরী, ড. ইফতেখারুজ্জামান, শামসুল হুদা, জাকির হোসেন, শিরিন হক, অধ্যাপক গীতিয়ারা নাসরীন, সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান, মামুনুর রশীদ, শারমীন এস মুরশিদ, শরীফ জামিল, আমিরুল রাজিব, নাঈম উল হাসান, অধ্যাপক আদিল মুহাম্মদ খান, অধ্যাপক ড. আহমদ কামরুজ্জামান মজুমদার প্রমুখ।

গতকাল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নিয়োগপ্রাপ্ত ঠিকাদার গাছ কাটা শুরু করলে ‘সাত মসজিদ সড়ক গাছ রক্ষা আন্দোলন’-এর ব্যানারে কর্মসূচি পালন শুরু হয়। গতকাল বিকাল সাড়ে ৫টায় সাত মসজিদ সড়কে গাছ কাটা বন্ধে সমাবেশের আয়োজন করা হয় এবং আজ সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে প্রেস ক্লাবের আব্দুস সালাম হলরুমে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে।

এতে বলা হয়, ২০২৩ সালের ৩১ জানুয়ারি যখন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নিয়োগপ্রাপ্ত ঠিকাদার এ গাছগুলো কাটা শুরু করে তখন স্থানীয় এলাকাবাসী, পরিবেশ ও সংস্কৃতিকর্মীরা সম্মিলিতভাবে ‘সাত মসজিদ সড়ক গাছ রক্ষা আন্দোলন’-এর ব্যানারে মানববন্ধন করে। এলাকাবাসী, ট্রাফিক পুলিশ থেকে শুরু করে সড়কের ছোট দোকানি কিংবা সাধারণ পথচারী সবাই গাছগুলো রক্ষা করে সড়ক বিভাজক সম্প্রসারণের দাবি তোলেন এবং অবিলম্বে গাছ কাটা বন্ধ করে কেটে ফেলা গাছের স্থানে দেশীয় প্রজাতির গাছের চারা রোপণেরও দাবি জানান। তাদের সম্মিলিত প্রতিবাদের মুখে প্রায় তিন মাস গাছ কাটা বন্ধ থাকলেও মে দিবসে আবার গাছ কাটা শুরু হয়।

এর বিরুদ্ধে গত ২ মে রাত ১০টায় ‘সাত মসজিদ সড়ক গাছ রক্ষা আন্দোলন’ জরুরি ভিত্তিতে মানববন্ধন করে। এ প্রতিবাদের খবর বেশ কয়েকটি জাতীয় দৈনিকে যথাযথ গুরুত্বের সঙ্গে প্রকাশ হয়। কিন্তু তার পরও থেমে থাকেনি গাছ কাটা। ৫, ৬ ও ৭ মে রাতে প্রায় ২০০ পরিণত ও সুস্থ গাছ কেটে ফেলে ঠিকাদাররা। তাদের কাছে কার্যপত্র দেখতে চাইলে তারা যে কার্যপত্র দেখায় সেখানে সড়ক বিভাজকে সৌন্দর্যবর্ধনের কথা থাকলেও গাছ কাটার কোনো কথা নেই। ফলে এ গাছ কাটার সপক্ষে সিটি করপোরেশনের কিংবা বন বিভাগ বা পরিবেশ অধিদপ্তরের কোনো অনুমোদন নেই বলে প্রতীয়মান।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।