পরমাণু গবেষণার গোপন নথি বাথরুমে রেখেছিলেন ট্রাম্প – দৈনিক মুক্ত বাংলা
ঢাকাশনিবার , ১০ জুন ২০২৩
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি-ব্যবসা
  3. আইন ও আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরও
  6. ইসলাম ও ধর্ম
  7. কোভিট-১৯
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলা
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. বিনোদন
  13. মি‌ডিয়া
  14. মু‌ক্তিযুদ্ধ
  15. যোগা‌যোগ

পরমাণু গবেষণার গোপন নথি বাথরুমে রেখেছিলেন ট্রাম্প

সম্পাদক
জুন ১০, ২০২৩ ৯:৫২ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতি‌বেদক ::

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় শতাধিক গোপন নথি সরানোর অভিযোগ আনা হয়েছে। এই সব নথি রাখার ক্ষেত্রে তিনি কোনো ধরনের সাবধানতা অবলম্বন করেননি। এর মধ্যে সামরিক পরিকল্পনা ও পরমাণু কর্মসূচি বিষয়ক নথিও ছিল। খবর বিবিসি।

তার বিরুদ্ধে ৩৭টি অভিযোগ আনা হয়েছে। ফ্লোরিডা এস্টেটে বলরুম ও বাথরুমে ফাইল রাখা এবং তদন্তকারীদের কাছে মিথ্যা বলার অভিযোগও এর মধ্যে অন্তর্ভুক্ত।

আদালতে মুখবন্ধ খামে জমা পড়া সেই অভিযোগপত্র গতকাল শুক্রবার (৯ জুন) প্রকাশ্যে আনেন মামলার আইনজীবী।

অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে, হোয়াইট হাউস ছাড়ার পর দেশের প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত, পরমাণু গবেষণা সংক্রান্ত প্রায় ১০০টি নথি নিজের ফ্লোরিডার বাড়িতে নিয়ে যান ট্রাম্প। মোট ৪৯ পাতার চার্জশিটের ভিত্তিতেই শুরু হয়েছে তদন্ত।

৩১টির অভিযোগের মূল বিষয়ই হলো, ইচ্ছাকৃতভাবে দেশের গুরুত্বপূর্ণ ও গোপন নথি নিজের কাছে রেখে দিয়েছেন ট্রাম্প। এমনকি দেশের তথ্য চুরির অভিযোগ এনেছেন আইনজীবী।

অভিযোগ উঠেছে ট্রাম্পের সহকারী ওয়াল্ট নওটার বিরুদ্ধেও। ফ্লোরিডার বাড়ির অন্তত ছয়টি জায়গায় গোপন নথি লুকিয়ে রাখতে সাবেক প্রেসিডেন্টকে সাহায্য করেছেন তিনি।

মাঝেমধ্যেই নিজের বাড়িতে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন ট্রাম্প। সেখানে বিভিন্ন ক্ষেত্রে ব্যক্তিত্বদের আমন্ত্রণ জানিয়ে থাকেন তিনি। এ পরিপ্রেক্ষিতে দেশের গোপন তথ্য ফাঁস হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছে জো বাইডেন প্রশাসন।

এই মামলার শুনানিতে আগামী মঙ্গলবার মায়ামির আদালতে উপস্থিত হতে পারেন ট্রাম্প। দোষী সাব্যস্ত হলে তার সর্বোচ্চ ২০ বছরের সাজা হতে পারে।

গত বছরের ৮ আগস্ট ট্রাম্পের মার-এ-লাগো রিসোর্টে তল্লাশি অভিযান চালিয়েছিল এফবিআই। ফ্লোরিডার ওই বাসা থেকে ১১ হাজারের বেশি সরকারি নথি ও ছবি উদ্ধার করা হয়।

অভিযুক্ত হওয়ার পর গত বৃহস্পতিবার নিজের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ট্রুথ সোশ্যালে মুখ খোলেন ট্রাম্প। বলেন, দুর্নীতিগ্রস্ত বাইডেন প্রশাসন আমার আইনজীবীকে জানিয়েছে, আমি নাকি এই মামলায় অভিযুক্ত হতে চলেছি।

এর অল্প সময় পরই ২০২৪ সালের নির্বাচনী প্রচারণার জন্য তহবিল সংগ্রহ শুরু করেন ট্রাম্প।

মামলাটি ট্রাম্পের জন্য আইনি ঝুঁকি আরো গভীর করেছে। এরই মধ্যে তিনি নিউইয়র্কে অভিযুক্ত হয়েছেন এবং ওয়াশিংটন ও আটলান্টায় তার বিরুদ্ধে ফৌজদারি অভিযোগও আনা হতে পারে।

গত এপ্রিলে নিউইয়র্কের গ্র্যান্ড জুরি তাকে অভিযুক্ত করার কয়েক মাসের মধ্যে এটি হবে ট্রাম্পের দ্বিতীয় আদালতের সমন।

এর আগে স্টর্মি ড্যানিয়েলস নামে এক পর্ন তারকাকে মুখ বন্ধ রাখতে অর্থ দেওয়ার অভিযোগে গত মার্চ মাসে ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়। ওই ঘটনার মাধ্যমে প্রথমবারের মতো সাবেক কোনো মার্কিন প্রেসিডেন্ট ফৌজদারি অভিযোগের সম্মুখীন হন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।