নির্বাচন নিয়ে কারো উপদেশ প্রয়োজন নেই – দৈনিক মুক্ত বাংলা
ঢাকারবিবার , ১১ জুন ২০২৩
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি-ব্যবসা
  3. আইন ও আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরও
  6. ইসলাম ও ধর্ম
  7. কোভিট-১৯
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলা
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. বিনোদন
  13. মি‌ডিয়া
  14. মু‌ক্তিযুদ্ধ
  15. যোগা‌যোগ

নির্বাচন নিয়ে কারো উপদেশ প্রয়োজন নেই

সম্পাদক
জুন ১১, ২০২৩ ১০:০৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদক :: 

সরকার দলের এমপিরা বলেছেন, দেশী-বিদেশী স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি উঠেপড়ে লেগেছে। বাংলাদেশকে চাপ দিয়ে লাভ নেই। বাংলাদেশ এখন বন্ধুহীন নয়। বিশ্ব রাজনীতিতে এখন বাংলাদেশকে প্রয়োজন। বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে কারো উপদেশ দেওয়ার প্রয়োজন নেই।

রোববার (১১ জুন) জাতীয় সংসদে ২০২৩-২৪ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের উপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে তারা এসব কথা বলেন।

সরকারি দলের সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ১৯৭০ সালের ১৯৭১ সালের নির্বাচন কি ভাল ছিল না? তাদের উপদেশ শুনতে হবে! যখন বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়, সামরিক শাসন জারি করা হয়, হাজার হাজার সেনা কর্মকর্তাকে হত্যা করা হয় তখন তারা মানবাধিকারের কথা বলেনি। এখন তারা নাকি গণতন্ত্রের জন্য ব্যস্ত।

সরকারি দলের সংসদ সদস্য এবি তাজুল ইসলাম বলেন, দেশের মানুষ বিশ্বাস করে দেশে যথাসময়ে নির্বাচন হবে এবং আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু হবে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ শান্তিরক্ষী মিশনে সেনা প্রেরণ করে। দেশের শান্তি রক্ষায় বাংলাদেশ নিজেরাই যথেষ্ট। কেউ নির্বাচন নিয়ে উপদেশ দেওয়ার প্রয়োজন নেই।

সরকারি দলের সংসদ সদস্য বেনজির আহমদ বলেন, দেশী-বিদেশী স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি উঠেপড়ে লেগেছে। বিশ্ব রাজনীতিতে এখন বাংলাদেশকে প্রয়োজন। বাংলাদেশকে চাপ দিয়ে লাভ নেই। বাংলাদেশ এখন বন্ধুহীন নয়।

বাজেট আলোচনায় অংশ নিয়ে সংসদে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদেরের কঠোর সমালোচনা করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দুই সংসদ সদস্য। জিএম কাদেরের সাম্প্রতিক বক্তব্যের কথা তুলে ধরে সরকার দলের এই দুই এমপি বলেন,  বিএনপি সরকারের সমালোচনা করতে পারে কিন্তু সরকারি সকল সুযোগ সুবিধা নিয়ে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান কেন সরকারের সমালোচনা করছেন তা বুঝে আসে না।

দিনাজপুর-৫ আসনের সরকার দলীয় সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমি অবাক হয়ে গেলাম। বিরোধী দলীয় উপনেতা বললেন দেশ নাকি নীরবেই শ্রীলংকা হয়ে গেছে। আমির খসরু (বিএনপি নেতা) সে কথা বললে সহ্য হয়। এ কথা ফখরুল (মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর) বললে সহ্য হয়। জিএম কাদের সাহেব বললেন দেশ নাকি নীরবেই শ্রীলংকা হয়ে গেছে। টের পাচ্ছে না কেউ। নীরবেই হয়ে গেছে। সশব্দে হওয়ার কথা। কিন্তু নীরবেই হয়ে গেছি। অর্থাৎ আমাদের অগ্রগতি নজরে পড়ে না। গণতন্ত্র নিয়ে ছবক দিচ্ছে।

দেশের সর্বত্র উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে দাবি করে তিনি বলেন, যারা দেখতে পায় না, দয়া করে তাদের চোখ অপারেশন করা দরকার। আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করি এদের চক্ষু, অন্তর খুলে দেন। এরা যেন দেখে ভালো করে। আর যেন শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করে।

চাঁদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য শফিকুর রহমান বলেন, আমরা এখানে যারা আছি সবাইকে বুকে হাত দিয়ে বলতে হবে আসলেই আমরা কী মূলধারার সঠিক রাজনীতি চাই কিনা। নাকি এখানে এসে সুবিধা নিয়ে অন্যদিকে কথা বলি।

বাংলাদেশ নীরবে শ্রীলংকা হয়ে গেছে জিএম কাদেরের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, আমরা জানতাম মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন ‘বাংলাদেশ ধ্বংস হয়ে গেছে, বাংলাদেশ ফ্যাসিস্ট হয়ে গেছে ‘ অনেক কিছু বলেন। তিনি বললে সেটা আমরা বুঝি। কিন্তু জিএম কাদের সাহেব যে বললেন সেটি আমরা বুঝি না। কারণ হচ্ছে তার দল শেখ হাসিনার কাছ থেকে সমস্ত সুযোগ সুবিধা নিয়ে, এই ধরণের অসত্য ভাষণ দেবেন। সেটা তো আমরা বুঝি না।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।