নির্বাচন থেকে বিএনপিকে সরাতে সরকার ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে : মির্জা ফখরুল – দৈনিক মুক্ত বাংলা
ঢাকাশুক্রবার , ১৬ জুন ২০২৩
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি-ব্যবসা
  3. আইন ও আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরও
  6. ইসলাম ও ধর্ম
  7. কোভিট-১৯
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলা
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. বিনোদন
  13. মি‌ডিয়া
  14. মু‌ক্তিযুদ্ধ
  15. যোগা‌যোগ
 
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নির্বাচন থেকে বিএনপিকে সরাতে সরকার ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে : মির্জা ফখরুল

সম্পাদক
জুন ১৬, ২০২৩ ৪:৪২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন থেকে বিএনপিকে সরিয়ে দিতে সরকার ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘নির্বাচনে কারচুপি করতে সরকার এখন থেকেই প্রশাসন সাজাচ্ছে। নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে স্থগিত থাকা মামলা সচল করা হচ্ছে। এসব কিছুর পেছনে উদ্দেশ্য একটাই—নির্বাচনের আগে বিএনপিকে মাঠছাড়া করা।’ গতকাল রাজধানীর গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

ক্ষমতাসীনদের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘আজীবন ক্ষমতায় থাকার এহেন পরিকল্পনা অতীতে ফেরাউন করেছিল, নমরুদ চেয়েছিল, এরশাদ সাহেবও চেয়েছিল। তারা পারেনি। সম্প্রতি বিভিন্ন কৌশলে বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর সরকারের জুলুম-নির্যাতন বেড়েই চলেছে। বিএনপিকে মাঠ থেকে সরিয়ে দিতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও বিচার বিভাগকে ব্যবহার করা হচ্ছে। খুন, হত্যা ও মিথ্যা মামলায় নাম দিয়ে নেতাকর্মীদের কারাগারে পাঠানো হচ্ছে। আওয়ামী লীগের লক্ষ্য একটাই, আবারো বিনা ভোটে জোর করে কারচুপি করে ক্ষমতা দখল। এজন্য তারা নির্বাচন থেকে বিএনপিকে সরিয়ে দিতে ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘ওরা (আওয়ামী লীগ) নির্বাচন কিন্তু শুরু করে দিয়েছে। আরেকটি নির্বাচন। রিগিং করতে হবে, সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। কয়েকটা পত্রিকায় রিপোর্ট বেরিয়েছে যে পুলিশে ব্যাপক রদবদল, ব্যাপক পদোন্নতি। বুধবার যে কাজটি করা হয়েছে সচিবদের রদবদল, অর্থাৎ প্রশাসনে পরিবর্তন আনা হয়েছে। একটাই উদ্দেশ্য, নির্বাচন সামনে রেখে তারা তাদের মতো করে সবকিছু সাজিয়ে তু্লছে। বাকশালও করেছেন আপনারা সবকিছু সাজিয়ে, কিন্তু টিকে থাকতে পারেন নাই।’

নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এখন একটাই পথ, সেটা হলো রাস্তায় নামা। রাস্তায় নেমে এ সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনকে জোরদার ও বেগবান করতে হবে। গতকাল (বুধবার) আমার যেটা মনে হয়েছে, (চট্টগ্রামে বিএনপির আয়োজনে তারুণ্যের সমাবেশে) সমুদ্রের সেই উত্তাল তরঙ্গের মতো ঝড়-তরঙ্গ সৃষ্টি করে সেটাকে ভেঙে দিতে হবে। সবাইকে আজ উঠে দাঁড়াতে হবে। সম্প্রতি নরসিংদীতে চক্রান্তমূলক হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে জেলা বিএনপির আহ্বায়ক ও সাবেক সংসদ সদস্য খায়রুল কবির এবং তার স্ত্রী শিরীন সুলতানাসহ প্রায় ৫০ জনের বিরুদ্ধে মিথ্যা হত্যা মামলা দেয়া হয়েছে।’ এগুলো চলমান সরকারবিরোধী আন্দোলনকে প্রতিহত করার হীন প্রচেষ্টা বলে দাবি করেন তিনি।

বুধবার চট্টগ্রামের সমাবেশ প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সমাবেশ থেকে ফিরে যাওয়ার সময় বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলা হয়। তারা নিজেরাই ভাংচুর করে মিথ্যা মামলা দিয়েছে।’ যুবদলের পাঁচ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অবিলম্বে তাদের মুক্তির দাবি করেন বিএনপির মহাসচিব।

এর আগে সকালে সংবাদপত্রের কালো দিবস পালনের অংশ হিসেবে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক ফোরাম আয়োজিত এক আলোচনা সভায় অংশ নেন মির্জা ফখরুল।

সেখানে তিনি বলেন, ‘১৯৭৫ সালের ১৬ জুন চারটি পত্রিকা রেখে বাকিগুলো বন্ধ করে দেয় তৎকালীন আওয়ামী লীগ সরকার। সেজন্য সাংবাদিকদের একটি অংশ দিনটিকে কালো দিবস হিসেবে পালন করে। আওয়ামী লীগের যে বডি কেমিস্ট্রি, সেই বডি কেমিস্ট্রিতে তারা কখনই ভিন্নমত সহ্য করতে পারে না। আপনি কোথাও যাবেন, কীভাবে চিনবেন আওয়ামী লীগকে? দেখবেন যে জোরে জোরে কথা বলছে, টেবিলটা চাপড়াচ্ছে, বুঝবেন সে আওয়ামী লীগ করে। এজন্য এ সরকারকে সরাতে হবে, সরিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।